ক্রিকেটখেলাধুলা

বাংলাদেশের খেলা মানে জামালখানে মানুষের মেলা

সংবাদ শিরোনাম

  • বাংলাদেশের খেলা মানে জামালখানে মানুষের মেলা

চট্টগ্রাম নগরীতে বিনোদনের জায়গা বলতে হাতেগোনা কয়েকটি স্পট। বিশেষকরে বিকেলবেলায় অফিস ফেরত মানুষ কিংবা ইট পাথরের চার দেয়ালে বন্দি মানুষগুলো একটু মুক্ত হাওয়ার আশায় ঘর ছেড়ে বাইরে আসেন। কিন্তু যাওয়ার কোন জায়গা নেই বললেই চলে। একেবারে নেই তা নয়। এই যেমন জামালখান মোড়। সিটি কর্পোরেশন কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমনের কল্যাণে বদলে যাওয়া জামালখানে এখন বিকেল হতেই নানান বয়সী মানুষের ‘আড্ডাখানা’। সেটি মনুষ্যমেলায় পরিণত হয় যেদিন বাংলাদেশের কোন খেলা থাকে এবং সেটি মোড়ে স্থাপিত বিশাল জায়ান্ট স্ক্রিনে দেখানো হয়।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের অন্যান্য দিনের খেলার মতো ব্যতিক্রম হয়নি আফগানবধের দিনেও। বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তানের খেলা দেখতে বিকাল থেকেই জমায়েত হতে শুরু করে খেলা পাগল মানুষ। উপচেপড়া ভীড়ে ছিলেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশা ও বয়সের মানুষ। এসেছিলেন বড় পর্দায় টাইগারদের আফগানবধের সাক্ষী হতে। জামালখান মোড় পরিণত হয় একখণ্ড সাউদাম্পটনের রোজভোল্ট, কখনো ওভাল কখনো বা সমারসেটের টনটন।

টানটান উত্তেজনাপূর্ণ এই ম্যাচে আফগানদের বিপক্ষে ৭ উইকেটে ২৬২ রান সংগ্রহ করে টাইগাররা। শুরুতে লিটন দাসের বিতর্কিত ক্যাচ আউট নিয়ে অনেকেই বিমর্ষ হয়ে পড়েন। ১৭ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১৬ রান করেন লিটন দাস। এরপর ২৩ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর ৬১ বলে ৫১ রানের জুটি গড়েন তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। প্রতিটি চার এবং ছক্কায় উল্লাসে ফেটে পড়ছিলেন দর্শকরা।

বিশেষ করে সাকিব ও মুশফিকুর রহিম জুটির অনবদ্য পারফরম্যান্স উপভোগ করেন তারা। সাকিব ৫১ রানে আউট হয়ে যাওয়ার পর মাহমুদউল্লাহর সাথে জুটি বাধে মুশফিক। পঞ্চম উইকেটে তারা যোগ করেন ৫৬ রান। ষষ্ঠ উইকেটে মোসাদ্দেক হোসেনের সাথে ৩৩ বলে ৪৪ রানের জুটি মুশফিকের। ৮৭ বলে ৪ টি বাউন্ডারি ও ১ টি ছক্কায় ৮৩ রান করেন তিনি। শেষের ২৪ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ৩৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন মোসাদ্দেক। আফগানিস্তানের পক্ষে মুজিবুর রহমান ৩ টি এবং গুলবাদিন নাইব ২ টি উইকেট নিয়েছেন। আফগানদের ২৬৩ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ।

উৎস
চট্টগ্রাম প্রতিদিন
বিস্তারিত দেখুন

সম্পর্কিত খবর গুলো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close