1. arkobd1@gmail.com : arkobd :
  2. dharmobodi88@gmail.com : dharmobodi :

মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |
তৈরি করেছেন - মুন্না বড়ুয়া
প্রয়োজনীয়ঃ
আপনার প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট,সফটওয়্যার কিংবা মোবাইল এপ তৈরি করতে আজই যোগাযোগ করুনঃ ০১৯০৭৯৮৬৩৬৯ আমরা যেসব সার্ভিস দিয়ে থাকিঃ বিজনেস ওয়েবসাইট,ই-কমার্স ওয়েবসাইট,সোশ্যাল ওয়েবসাইট,অনলাইন নিউজপেপার,বেটিং ওয়েবসাইট,কেনা বেচার ওয়েবসাইট,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট ইত্যাদি। আমরা আরো যেসব সেবা দিয়ে থাকিঃ সুপারশপ সফটওয়্যার,ফার্মেসি সফটওয়্যার,ক্লথিং/বুটিক ষ্টোর সফটওয়্যার,একাউন্টিং সফটওয়্যার,HRM ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার,স্কুল/কলেজ ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার সহ সকল ধরনের মোবাইল এপ তৈরি করে থাকি আপনার বাজেটের মধ্যেই। তো দেরি না করে আজই যোগাযোগ করুন এবং অর্ডার করুন আপনার চাহিদা মত সেবা। ফিউচার টেক বিডি
শিরোনামঃ
বরণ্য পুণ্যপুরুষ ভদন্ত বুদ্ধপিয় মহাথেরো’র সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত সংঘরাজ ভিক্ষু মহামন্ডল এলাকায় সকাল বেলায় কঠিন চীবর দান শেষ করার নির্দেশ বোধিতরুর কথা আনন্দবোধির কথা সাতবাড়ীয়া শান্তি বিহারের নতুন ভবনে প্রবেশ ও ১০৯ তম কঠিন চীবরদান ২৯ ও ৩০শে অক্টোবর কান্তা বড়ুয়াকে হত্যা করা হয়েছিল – জ্ঞান অন্বেষণ নিউজ ৬ দিনেও খোঁজ মেলেনি দুলাল বড়ুয়ার ডক্টর অরুনজ্যোতি মহাস্থবির মহোদয় করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ফটিকছড়ির আঞ্চলিক সংঘরাজ ভদন্ত শ্রদ্ধালংকার মহাস্থবির মেক্স হাসপাতালে সি সি ইউতে ত্রিপিটকের বিশুদ্ধিতা রক্ষায় পালি শিক্ষা প্রয়োজন চট্টগ্রাম বিভাগ আ’লীগের সাংগঠনিক দায়িত্বে ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া অনোমা সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী’র মহাসচিব বাবু আশীষ বড়ুয়া পরপাড়ে – জ্ঞান অন্বেষণ অনলাইন অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন

মহামান্য দশম সংঘরাজ শ্রী জ্যোতিঃপাল মহাথেরো এর জীবনালেখ্য

  • আপডেটের সময়ঃ মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৮৯ বার পঠিত

মহামান্য দশম সংঘরাজ শ্রী জ্যোতিঃপাল মহাথেরো এর জীবনালেখ্য

মহাপুরুষেরা সর্বত্র জন্মগ্রহণ করেন না। তারা যেখানে জন্মগ্রহণ করেন সেই জনপদ হয় ধন্য। তাদের স্বীয় কর্ম মহিমায় ঐ জনপদ হয় আলোকিত। কুমিল্লা জেলার লাকসাম থানার অন্তর্গত বরইগাওয়ের কেমতলী একটি নিভৃত পল্লী। আর এই নিভৃত পল্লী বরইগাওয়ে পালি পরিবেণ, অনাথাশ্রম, ছাত্রাবাস, বয়নকেন্দ্র, সমাজ-কল্যাণ কেন্দ্র, লাইব্রেরী ও উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে অঞ্চলটিকে প্রদীপের আলোয় নিয়ে আসেন। ক্ষণজন্মা মহাপুরুষ জ্যোতিঃপাল মহাথেরো এর কথাই বলছি।

জ্যোতিপাল মহাথেরো এর গৃহী নাম ছিল দ্বারিকা মোহন সিংহ। পিতা চন্দ্রমনি সিংহ এবং মাতা দ্রোপদীবালা সিংহ এর কোল আলোকিত করে ১৯১৪ইং তে তার জন্ম হয়। কে জানত এই শিশু বড় হয়ে শুধু বরইগাও নয় বরং সমগ্র বাংলার বৌদ্ধ তথা বঙ্গভূমির জন্য কল্যাণকারী মহামানবদের তালিকায় নিজেকে ঠাই করে নেবে।
মাত্র ১২ বছর বয়সেই দ্বারিকা মোহনকে প্রব্রজ্যা ধর্মে দীক্ষিত করা হয়। পরে ২৪ বছর বয়সে ১৯৩৮ সালের ১৪ জুলাই উপসংঘরাজ পন্ডিত শ্রীমৎ গুণালংকার মহাস্থবিরের উপাধ্যায়ত্বে তিনি উপসম্পদা প্রাপ্ত হন।পাহাড়তলী মহামুনি পালি কলেজে পন্ডিত শ্রীমৎ ধর্মাধার মহাস্থবিরের তত্ত্বাবধানে অধ্যবসায়ের সহিত পালি ভাষা, সাহিত্য, বৌদ্ধ ধর্ম ও দর্শন বিষয়ে অধ্যয়ন করেন।

কলকাতা ধর্মাঙ্কুর বিদ্যাভবনে শ্রীমৎ বংশদ্বীপ মহাস্থবিরের নিকটও তিনি পালি ভাষায় ধর্ম শাস্ত্র অধ্যয়ন করেন। বিনয় ও অভিধর্ম বিভাগে উপাদি পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করায় বঙ্গীয় সংস্কৃতি পরিষদ হতে তিনি স্বর্ণপদক লাভ করেন। জীবনের বেশীরভাগ সময়ই তিনি সাহিত্য চর্চায় ব্যয় করেছেন যার ফলশ্রুতিতে আমরা পেয়েছি বেশ কিছু অমর সৃষ্ঠি যা বৌদ্ধ সাহিত্য দেদীপ্যমান হয়ে রয়েছে। তার রচিত গ্রন্থগুলো হচ্ছে – কর্মতত্ত্ব, পুদগল প্রজ্ঞপ্তি, মালয়েশিয়া ভ্রমণ কাহিনী, বাংলাদেশ মুক্তি সংগ্রামে, বোধিচর‌্যাবতার, সাধনার অন্তরায়, বুদ্ধ ধর্মীয় শিক্ষা, সৌম্য সাম্যই শান্তির কারণ, প্রজ্ঞাভূমি নির্দেশ, ভারতে বৌদ্ধ, ব্রহ্ম বিহার, চর্যাপদ, বুদ্ধের জীবন ও বাণী, গুরুদেব গুণালংকার মহাস্থবির, রবীন্দ্র সাহিত্যে বৌদ্ধ সংস্কৃতি। তার রচিত গ্রন্থ সমূহের মধ্যে চর্যাপদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগে, পুদগল প্রজ্ঞপ্তি, বোধিচর‌্যাবতার এবং প্রজ্ঞাভূমি নির্দেশ পালি বিভাগে পাঠ্য পুস্তকের মর্যাদা লাভ করেছে।

তিনি বোধিপত্র নামে এক ত্রৈমাসিক পত্রিকা সম্পাদনা করেছেন। এছাড়া তার রচিত ধর্ম ও সমাজ সম্পর্কিত বহু প্রবন্ধ বিভিন্ন সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে। ১৯৪৯ সাল থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত তিনি স্থানীয় হরির হাই স্কুলে বিনা বেতনে স্বেচ্ছাশ্রমে শিক্ষকতা করেন। ১৯৭২ থেকে ১৯৭৬ সাল পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশন এবং বাংলাদেশ বেতারে নিয়মিত ত্রিপিটক পাঠ করেন। স্বাধীনতা যুদ্ধকালে তিনি ভারতে আশ্রয় গ্রহণ করেন। এসময় তিনি আগরতলায় বিদেশী সাংবাদিকদেরকে পাক বাহিনীর গণহত্যার বিভৎস বিবরণ তুলে ধরেন। এসময় বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করে তিনি বাংলাদেশের উপর পাকিস্তানের উপর নিপীড়ণ বিরোধী গণমত সৃষ্ঠিতে অবদান রাখেন।

শ্রীমৎ জ্যোতিপাল মহাথের তার বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় কর্মকান্ডের জন্য বিভিন্ন সম্মাননায় ভূষিত হন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল- ত্রিপিটক বিশারদ(গোল্ড মেডালিস্ট), মহাধর্মনিধি, বিশ্বনাগরিক, ধর্ম ও শান্তি পুরস্কার, অগ্রমহাসদ্ধর্মজ্যোতিকধ্বজ, একুশে পদক, স্বাধীনতা পদক। ২০০২ সালের ১২ এপ্রিল এ মহান সংঘ মনীষার প্রয়াণ ঘটে। আমরা পূজ্য ভান্তের নৈর্বাণিক শান্তি কামনা করছি।

এই খবরটি সোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো খবর
GO AD

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
তৈরি করেছেনঃ মুন্না বড়ুয়া
জ্ঞানঅন্বেষণ কর্তৃক সকল অধিকার সংরক্ষিত © ২০২০
Developed By: Future Tech BD