1. arkobd1@gmail.com : arkobd :
  2. dharmobodi88@gmail.com : dharmobodi :

মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর |
তৈরি করেছেন - মুন্না বড়ুয়া
প্রয়োজনীয়ঃ
আপনার প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট,সফটওয়্যার কিংবা মোবাইল এপ তৈরি করতে আজই যোগাযোগ করুনঃ ০১৯০৭৯৮৬৩৬৯ আমরা যেসব সার্ভিস দিয়ে থাকিঃ বিজনেস ওয়েবসাইট,ই-কমার্স ওয়েবসাইট,সোশ্যাল ওয়েবসাইট,অনলাইন নিউজপেপার,বেটিং ওয়েবসাইট,কেনা বেচার ওয়েবসাইট,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট ইত্যাদি। আমরা আরো যেসব সেবা দিয়ে থাকিঃ সুপারশপ সফটওয়্যার,ফার্মেসি সফটওয়্যার,ক্লথিং/বুটিক ষ্টোর সফটওয়্যার,একাউন্টিং সফটওয়্যার,HRM ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার,স্কুল/কলেজ ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার সহ সকল ধরনের মোবাইল এপ তৈরি করে থাকি আপনার বাজেটের মধ্যেই। তো দেরি না করে আজই যোগাযোগ করুন এবং অর্ডার করুন আপনার চাহিদা মত সেবা। ফিউচার টেক বিডি
শিরোনামঃ
বরণ্য পুণ্যপুরুষ ভদন্ত বুদ্ধপিয় মহাথেরো’র সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত সংঘরাজ ভিক্ষু মহামন্ডল এলাকায় সকাল বেলায় কঠিন চীবর দান শেষ করার নির্দেশ ১৬-১৭ ডিসেম্বর স্বদ্ধর্মধ্বজ শ্রদ্ধালংকার মহাথেরো’র জাতীয় অন্তোষ্টিক্রিয়া”২১ অনুষ্ঠিত হবে ভদন্ত ত্রিলোকপ্রিয় মহাথেরো চট্টগ্রাম মেডিকেলে স্ট্রোক করে পরলোকগমণ করেন ভদন্ত উদয়ন জ্যোতি মহাথের প্রয়াণ করেছেন ধার্মীক উপাসক সুনীল বড়ুয়া কর্তৃক অষ্টপরিষ্কারদান, সংঘদান ও পঞ্চবর্গীয় প্রতিবিম্ব দান সু-সম্পন্ন হয়েছে স্বদ্ধর্মধ্বজ শ্রদ্ধালংকার মহাথেরো’র প্রয়াণত্তোর ১ম মাসিক অষ্টপরিস্কারদান সংঘদান শিষ্যগন কর্তৃক অনুষ্ঠিত- জ্ঞান অন্বেষণ নিউজ প্রয়াণগত স্বদ্ধর্মধ্বজ পন্ডিত শ্রদ্ধালংকার মহাথেরো’র জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া স্থগিত- জ্ঞান অন্বেষণ নিউজ এইচ এম সাঁচি উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি হয়েছেন নীতিশ বড়ুয়া- জ্ঞান অন্বেষণ নিউজ এমওএসএইচ ক্যান্সার হাসপাতাল কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া পাকিস্তানে বৌদ্ধ ধর্মের করুণ অবস্থা বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি বোর্ড পুনর্গঠিত হলো

আদর্শ সন্তান গঠনে মা বাবার ভূমিকা

  • আপডেটের সময়ঃ সোমবার, ২৪ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৬৪ বার পঠিত

এম ধর্মবোধি থের, সম্পাদক- জ্ঞান অন্বেষণ অনলাইন নিউজ। অধ্যক্ষ, ঐতিহাসিক পুণ্যতীর্থ আবদুল্লাপুর শাক্যমুনি বৌদ্ধ বিহার।

আমাদের সমাজে বর্তমানে সন্তানের কাছে মা বাবা থেকে শুরু করে পুজনীয় ব্যাক্তিরা কোন রকম শ্রদ্ধা সম্মান পাচ্ছেন না সংখ্যায় বেশি ছেলে মেয়ের কাছে।

প্রশ্ন থাকে বারাংবার…………কেন…?
কি জন্য?  কি কারনে?

আজ এক মা ও বাবার কথা শুনে, নিজের অজান্তে কান্নায় নিজের চোখ পানিতে  ভিজে গেল। কিছু লিখতে ইচ্ছে হলো। এই বাস্তব সত্য অসহায় পিতা ও মাতার কষ্ট দেখে…

এক জন মায়ের কুলে পাঁচ ছয়টি ছেলে মেয়ে জম্ম নেয়, মায়ের একটি মাত্র কুলে দুইটি মাত্র স্থন ভোজন করে সন্তান বড় হয় আদর যতনে, বাবার হারভাঙ্গা পরিশ্রমে আয় করা অর্থে মায়ের অতুলনীয় ভালাবাসায় বাবার প্রাণপন প্রচেষ্ঠায় বড় হয় সন্তান।
কেউ ডাক্তার কেউ মাষ্টার কেউ বা জর্জ উকিল সরকারের বড়কর্তা ব্যাংকার ইত্যাদি ইত্যাদি।

কত রাত্রে না খেয়ে ঘুমিছেন মা,কতদিন অনাহারে উপর্জন করেছেন বাবা একমাত্র নিজ সন্তানের মঙ্গলের জন্য,
রাতদিন সম পরিশ্রম করে সন্তানদের উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষত করেছেন মা ও বাবা। ভগবানের কাছে কত প্রার্থনা করেছেন আপন সন্তানের রোগমুক্তি কামানায়।

তথাগতের কাছে চেয়েছেন আপন জীবনের বিনিময়ে সন্তানের সুন্দর জীবন। নিজের জীবন কে জীবন মনে করেন নি কখনো জনক জননী। সকল সুখ বিলিয়ে দিয়েছেন আপন পুত্র কন্যার কল্যানে।

সন্তান বড় হয়ে সংসার করেছে তারাও সন্তান জম্ম দিয়েছে, ঢাকা-চট্টগ্রামে বড় বড় বাড়ি গাড়ি অট্টলিকা টাকার মালিক হয়েছে।

এক জন মা বাবার পাঁচ ছয় সন্তানের পাঁচ ছয়তলা বাড়িতে থাকা ও খাওয়ার জায়গা হয় না। তাদের অযত্ন অবহেলায় সেই গ্রামের কুড়ের ঘরে স্থান হয় করুন আবস্থায়।

বৃদ্ধ সময়ে অবহেলা তুচ্চতাচ্চিল্যতায় জীবন চলে মরণ প্রহর গুনা প্রর্যন্ত, কিছুই করার থাকে না অসহায় শক্তিহিন এই মানবের, নিজেকে তখন পৃথিবীর ময়লা আর্বজনা মনে করে জীবন যৌবন বিলিয়ে দেওয়া জনক জননী হাবুডুবু খায় কষ্টের সাগরে।

কি জন্য ?  কারন কি……?

বুদ্ধ বলেছেন
বহুসচ্চাঞ্চা, সিপ্পাঞ্চা বিনয়ো চ সুসিকখিতো
সুভাসিতা চ যা বাচা, এতং মঙ্গলমুত্তমং।

বিনয়ে সু-শিক্ষত হয়ে বহু শিপ্ল শিক্ষা করা, নানা শাস্রে জ্ঞান লাভ করা, সুবাক্য শ্রবণ করা,নিজেকে সাম্যক পথে এগিয়ে নেওয়া উত্তম মঙ্গল।

কিন্তু মা বাবা সন্তানকে বিনয় ও সু-শিক্ষায় শিক্ষাত করেন না!!  সাধারন শিক্ষায় শিক্ষত করেন….মাত্র..!

বুদ্ধ বলেন
অরতি বিরতি পাপা,মজ্জপানা চ সাঞ্ঞমো,
অপ্পমাদো চ নিবাতো চ এতং মঙ্গলমুত্তমং।

কায়িক ও মানসিক পাপের অনাসক্তি, শারীরিক ও বাচনিক পাপের বিরতি,মদ্যপান ত্যাগ এবং সকল প্রকার অ-কুশল (পাপ কাজ) ত্যাগ করে অপ্রমত্তভাবে পুণ্যকর্ম সম্পাদন করা উত্তম মঙ্গল।

বর্তমান সমাজ বিনির্মানে মা বাবারা বুদ্ধের এই শিক্ষা দিচ্ছেন কি না তা যতেষ্ট সন্ধিহার!  যার কারন হেতু সন্তান সঠিক ভাবে পাপ কি, পুণ্য কি বুঝতে সক্ষম হচ্ছে না।

বুদ্ধ বলেন
গারোবো চ নিবাতো চ সন্তটঠী চ কতঞ্ঞুতা,
কালেনা ধম্মসবণং এতং মঙ্গলমুত্তামং।

পুজনীয় ব্যক্তির পুজা করা,তাদের প্রতি শ্রদ্ধা সম্মান প্রদর্শন করা,প্রাপ্ত বিষয়ে সন্তষ্ট থাকা, উপকারীর উপকার স্বীকার করা, যথা সময়ে ধর্ম শ্রবণ করা  উত্তম মঙ্গল।

মা বাবারা বুদ্ধের এই শিক্ষা কি নিজ সন্তানদের দিচ্ছেন….প্রশ্ন থেকে যায়?

পিতা মাতা তো শিক্ষা দিচ্ছে অর্থ আয় করার জন্য সাধারন শিক্ষা।
সম্মান সেবা করার শিক্ষা কতজন মা বাবা দিচ্ছেন?
শিশুর মনন শীলতার জন্য দরকার সু-শিক্ষা দওয়ার দরকার।

যাহার কারণে প্রতিষ্ঠানীক শিক্ষায় শিক্ষত হয়ে অন্ধের মত অর্থ আয় করার সকল প্রন্থা অর্জন করেছে সন্তান সম্পাদায়..
বুদ্ধের শিক্ষা, বিনয়ের শিক্ষা, সু-আচার আচরনের শিক্ষা পাচ্ছেনা বলে পুত্রের কাছে পিতা মাতা গুরু জন আজ অবহেলিত।
আসুন বুদ্ধের সেই মঙ্গল সুত্ত,সিঙ্গালাবাদ সুত্রের  শিক্ষায় নিজ সন্তানদের শিক্ষত করি।
গৃহিনিতী অবলম্বন করে সুন্দর ও সুস্থ সমাজ নির্মান করি। (সংক্ষেপ)

এই খবরটি সোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট
জ্ঞানঅন্বেষণ কর্তৃক সকল অধিকার সংরক্ষিত © ২০২০
Developed By: Future Tech BD