1. arkobd1@gmail.com : arkobd :
  2. dharmobodi88@gmail.com : dharmobodi :

শিরোনামঃ

মিরসরাইয়ে প্রস্তুত হচ্ছে বিনিয়োগের রাজধানী

  • আপডেটের সময়ঃ রবিবার, ১৭ মার্চ, ২০১৯
  • ৩৬ বার পঠিত

বঙ্গোপসাগরের তীর ঘেঁষে জেগে ওঠা বিশাল চরাঞ্চলটি একসময় ছিল মাছ চাষ আর গবাদি পশু বিচরণক্ষেত্র। লবণাক্ততার কারণে আপাত ব্যবহার অনুপযোগী এই ধু-ধু চরাঞ্চলজুড়ে এখন চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ।

একাধিক ড্রেজার দিয়ে সাগর থেকে মাটি এনে ভরাট করা হচ্ছে জমি। ইট-বালি আর সিমেন্টের সংমিশ্রণে গড়ে উঠছে বিশাল বিশাল ভবন। গরু চলার পথে চরের বুক চিড়ে নির্মিত হচ্ছে চার লেন সড়কের কাজ। সাগরপারে ভেড়িবাঁধ নির্মাণকাজ চলছে দ্রুত গতিতে।

এভাবেই ধীরে ধীরে প্রস্তুত হচ্ছে বাংলাদেশের বিনিয়োগের ভবিষ্যৎ রাজধানী ‘মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চল’। যদিও নিয়ন্ত্রক সংস্থা বেজা মিরসরাই, সীতাকুণ্ড ও ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার ৩০ হাজার একর নিয়ে গঠিত দেশের সবচেয়ে বড় এই অর্থনৈতিক অঞ্চলের নাম দিয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর’। বেজা কর্তৃপক্ষ আশা করছে, চলতি বছরই এই অর্থনৈতিক অঞ্চল থেকে পণ্য রপ্তানি শুরু হবে।

সম্প্রতি প্রকল্প এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, পুরো এলাকায় উন্নয়নের বিশাল কর্মযজ্ঞ চলছে। উপযুক্ত জমির অভাবে এত দিন বিনিয়োগ করতে না পারা অনেক প্রতিষ্ঠান এখানে জমি নিচ্ছে।

বর্তমানে মিরসরাই শিল্পজোনের ফেইজ-২এ ও ২বি এলাকায় প্রথম ধাপের উন্নয়নকাজ চলছে। আগামী এক থেকে দেড় বছরের মধ্যে এসব জমি শিল্প-কারখানা স্থাপন ও বিনিয়োগ উপযোগী হয়ে উঠবে। প্রথম ধাপে ৫৫০ একর ভূমি উন্নয়নের কাজ চলছে, ফেইজ-২ এর ৮৮০ একর ভূমি উন্নয়নের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। প্রকল্প এলাকায় যাতায়াতের জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক হয়ে চার লেনবিশিষ্ট সংযোগ সড়ক নির্মাণ, অভ্যন্তরীণ সড়ক নির্মাণ, বিদ্যুৎকেন্দ্র ও জাহাজ ভেড়াতে টার্মিনাল স্থাপন, প্রশাসনিক ভবন নির্মাণ, সুপেয় পানির সরবরাহে গভীর নলকূপ স্থাপন, পর্যটন সম্ভাবনা তৈরি করতে পাঁচটি কৃত্রিম লেকের সমন্বয়ে ‘শেখ হাসিনা সরোবর’ তৈরি ও সমুদ্র প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ হচ্ছে।

কথা হয় বিসমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. কামরুল হোসেনের সঙ্গে। তাঁর প্রতিষ্ঠান এই অর্থনৈতিক অঞ্চলের একাধিক প্রতিষ্ঠানে ঠিকাদারি কাজ করছেন। মিরসরাই উপজেলার সরকারদলীয় এই নেতা বলেন, ‘অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য নির্ধারিত এলাকাটি মূলত গবাদি পশুর চারণভূমি ছিল। এ ছাড়া এসব জমিতে এক ফসলি ধান হতো। অর্থনৈতিকভাবে খুব বেশি কার্যকরী ছিল না। একরপ্রতি জমির মূল্য ছিল ৩০ থেকে ৫০ হাজার। আর এখন অর্থনৈতিক অঞ্চলের রাস্তার আশপাশের জমি একরপ্রতি এক থেকে দেড় কোটি টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অর্থনৈতিক অঞ্চলটি চালু হলে পুরো এলাকার আর্থ-সামাজিক পরিবেশে ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটবে। ’

বঙ্গবন্ধু শিল্পনগর হবে দেশের সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক অঞ্চল। এর আকার হবে ৩০ হাজার একর। সেখানে জমি বরাদ্দের জন্য ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে আবেদন নেওয়া শুরু করে বেজা। এরই মধ্যে সেখানে বিপুল বিনিয়োগ প্রস্তাব এসেছে। বেজা এরই মধ্যে সেখানে কারখানা করার জন্য চার হাজার একরের মতো জমি বরাদ্দ দিয়েছে। মোট প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে ৫৬টি। এর মধ্যে জমি পেয়েছে ৩৯টি। এসব কম্পানি প্রায় ১২ বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ প্রস্তাব দিয়েছে।

এরই মধ্যে আগ্রহী বিদেশি বিভিন্ন শিল্পপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে চারটি চীনা কম্পানিকে বিনিয়োগের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। জাপানের অন্যতম বৃহৎ শিল্প গ্রুপ সুজিতসু করপোরেশনকে জমি বরাদ্দের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। সুজিতসু করপোরেশন একটি আলাদা বন্দর স্থাপন করবে। ‘ইন্ডিয়ান ইকোনমিক জোন’ করতে এক হাজার ৫৪ একর জমি ও একটি আইটি পার্ক করতে ৭২০ কোটি টাকা ভারত বিনিয়োগ করবে। সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব, অস্ট্রেলিয়া, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়ার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানও এখানে বিনিয়োগ করবে। সর্বশেষ যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বাণিজ্য যুদ্ধের কবলে পড়ে চীনের ঝুঝাউ জিনইউয়ান কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রি মিরসরাই ইপিজেডে ১০ একর জমি নিয়েছে বিনিয়োগের জন্য।

এ ছাড়া বাংলাদেশের পিএইচপি, বসুন্ধরা গ্রুপ, বিএসআরএম স্টিল, এসিআই, যমুনা গ্রুপের মতো শীর্ষস্থানীয় ব্যাবসায়িক গ্রুপগুলোও মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে শিল্প-কারখানা স্থাপনের জন্য জমি নিয়েছে। বিজিএমইএ গার্মেন্ট পল্লী স্থাপনের জন্য ৫০০ একর জমি বরাদ্দ নিয়েছে এই অর্থনৈতিক অঞ্চলে।

মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলকে বিনিয়োগের ভবিষ্যৎ রাজধানী উল্লেখ করে বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেন, ‘মিরসরাইয়ে এখন পর্যন্ত ১২ বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ প্রস্তাব এসেছে। এটা ২৫ বিলিয়নে উন্নীত হবে বলে আশা করছি। পুরোদমে চালু হলে ১০ লাখ কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে এখানে। ’

বেপজার মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) নাজমা বিনতে আলমগীর কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের জোনে বিনিয়োগ করতে অনেকেই আগ্রহ দেখাচ্ছেন। এখনো আনুষ্ঠানিক আহ্বান না জানালেও আমাদের বিভিন্ন ইপিজেড থেকে অনেক বিনিয়োগকারীই মিরসরাইয়ে প্লট বরাদ্দ চেয়ে নিজেদের আগ্রহের কথা জানিয়ে রেখেছেন।

অনুগ্রহ করে এই খবরটি সোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো খবর
জ্ঞানঅন্বেষণ কর্তৃক সকল অধিকার সংরক্ষিত © ২০১৯
Developed By: Future Tech BD