সম্পাদকীয়

জ্ঞান অন্বেষন প্রকাশনীর ৭ম প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত।

জ্ঞান অন্বেষন প্রকাশনী" একটি বৌদ্ধ ধর্মীয় গ্রন্থ প্রকাশনা সংঘঠন।

সংবাদ শিরোনাম

  • জ্ঞান অন্বেষন প্রকাশনীর ৭ম প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত।

ভারতীয় সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার ১ম সংঘরাজ অগ্রমহাপন্ডিত ভদন্ত ধর্মাধার মহাস্থবির এক জন বহুগুনের প্রতিভাদীপ্ত ব্যক্তি।

তিনি ১৯০১ খ্রিষ্টাব্দের ২৭ জুলাই চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি থানাস্থ ধর্মপুর গ্রামে জম্মগ্রহন করেন।

ওনার পিতা তৎকালীন এক জন সমাজ দরদী ব্যক্তি ছিলেন, বাবু হরচন্দ্র বড়ুয়া ও মাতা প্রাণেশ্বরী বড়ুয়া।

উপমহাদেশের প্রখ্যাত এই বৌদ্ধ দার্শনিক একাধারে, অনুবাদক, লেখক, প্রকাশক, সংগঠক, ইতিহাসবিদ, শিক্ষাবিদ ও গবেষক ছিলেন। এই মহান পুণ্যপুরুষ ভারত বাংলার সীমা অতিক্রম করে অন্তজার্তিক ভাবে খ্যাতি লাভ করেছেন তার লিখনি ও সমাজ জাগরনের মধ্যদিয়ে।

পন্ডিত ধর্মাধার মহাস্থবির কর্তৃক প্রতিষ্ঠা হয় মহামুনি পালি কলেজ, চট্টল ভিক্ষু সমিতি, ভারতীয় সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভা সহ অনেক মানবতাবাদী সংগঠন।

তিনি ভারতীয় রাষ্ট্রপতির সম্মননাসহ বহু উপাধি ও পুরুস্কার লাভ করেন।

তিনি ১৯৪৭ সালে নালন্দা বিদ্যাভবনের অধ্যক্ষ পদ গ্রহন, ১৯৫৬ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেন।

তাঁর গ্রন্থগুলি মধ্যে ধর্মপদ, বৌদ্ধ দর্শন, মধ্যম নিকায়, শাসনবংশ, মিলিন্দপ্রশ্ন, অধিমাস বিনিশ্চয়, সর্দ্ধমের পুনরুণ্থান, বুদ্ধের ধর্ম ও দর্শন সহ অনেক মহামূল্যবান গ্রন্থ তিনি রচনা করেছেন।

পন্ডিত ধর্মাধার মহাস্থবির কর্তৃক রচিত অনেক গ্রন্থ অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে পালি বিভাগে পাঠ্যবিষয় রুপে গবেষনা চালিয়ে যাচ্ছে।।

পন্ডিত ধর্মাধার মহাস্থবিরের অন্যতম গ্রন্থগুলির মধ্যে “বৌদ্ধের ধর্ম ও দর্শন” একটি গুরুত্ববহ গ্রন্থ ১৯৭৪ সালে কলকাতায় প্রথম প্রকাশনা হয়েছে, পরবর্তীকালে গ্রন্থটি পুনঃ প্রকাশ করা হয়েছে কি না তার সঠিক ইতিহাস জানা যায় নি।

বর্তমান সময়ের তরুন সংগঠক ও উদয়মান সমাজকর্মী “জ্ঞান অন্বেষন প্রকাশনী”র সম্পাদক ও জ্ঞান অন্বেষন.কম এর প্রকাশক (ফ্রান্স প্রবাসি) বাবু সনজীব বড়ুয়ার একক অর্থায়নে ও ঐতিহাসিক পুণ্যতীর্থ আবদুল্লাপুর শাক্যমুনি বৌদ্ধ বিহার এর অধ্যক্ষ ও সভাপতি এম ধর্মবোধি ভিক্ষুর সম্পদনায় ৯ নভেম্ভর ২০১৮ ইংরেজি, শুক্রবার,  ঐতিহাসিক পুণ্যতীর্থ আবদুল্লাপুর শাক্যমুনি বৌদ্ধ বিহারে দানোত্তম শুভ কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানে প্রকাশনা উৎসব করা হয়।

১২ নভেম্ভর ২০১৮ ইংরেজি, রবিবার, মিরসরাই থানাস্থ মায়ানি তথাগত বিদর্শনারাম ও ত্রিপিটক গবেষনা কেন্দ্রে শুভ কঠিন চীবর দানোৎসবে গ্রন্থটি উপর বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়। আলোচনায় অংশগ্রহন করেন পন্ডিত প্রিয়ানন্দ মহাস্থবির, কর্মদূত জিনালংকার মহাস্থবির, শিক্ষবিদ শাসনবংশ মহাস্থবির, ভদন্ত লোকানন্দ মহাস্থবির, সংঘতিলক ভদন্ত মৈত্রিপ্রিয় মহাস্থবির, গ্রন্থটির সম্পাদক এম ধর্মবোধি ভিক্ষু ভদন্ত উপানন্দ ভিক্ষু প্রমুখ সমাজিক ব্যক্তিবর্গ এবং ১৩ নং মায়ানি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব কবির হোসেন নিজামি, ১৩নং ইউনিয়ন পরিষদ আওয়ামী লীগ এর সাধারন সম্পাদক জনাব মামুন ভাই, মহিলা ইউপি সদস্য মিসেস্ নিরুপমা বড়ুয়া, ইউপি সদস্য বাবু তরজু বড়ুয়া, শিক্ষক বাবু ভূবেনশ্বর বড়ুয়া, শিক্ষক উত্তম বড়ুয়া । আলোচকগন প্রকাশক বাবু সনজীব বড়ুয়া’র প্রশংসা করে বলে “জ্ঞান অন্বেষন প্রকাশরী”র মধ্যদিয়ে বাবু সনজীব বড়ুয়া সমাজ জাতির জন্য য়ে ত্যাগময় অবদান রেখে যাচ্ছেন তা অতুলনীয়, এই জাতি ও সমাজ তার অবদান কখনো ভূলবে না, আমরা সবাই তাকে আর্শিবাদ করছি তার আগামি দিনগুলি সুন্দর হোক।।

সম্পাদক এম ধর্মবোধি ভিক্ষুকে ধন্যবাদ জানিয়ে আলোচকগন বলেন গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থটি নতুন ভাবে পাঠক সমাজের জন্য অতি প্রয়োজন ছিলো। এম ধর্মবোধি ভিক্ষুর সম্পাদনায় বুদ্ধের ধর্ম ও চট্টগ্রামের ইতিহাস, বড়ুয়া, চাকমা্দের ইতিহাস পাঠকগন আবার নতুন ভাবে জানতে পারবে। সম্পাদনা খুবই কঠিন একটি বিষয়,  ধর্ম ও জাতির জন্য এম ধর্মবোধি ভিক্ষু এই কঠিন কাজগুলি করে ধর্মের কল্যান সাধন করে যাচ্ছেন।

শিক্ষাবিদ শাসনবংশ মহাস্থবির কর্তৃক আয়োজিত দানোত্তম শুভ কঠিন চীবর দানোৎসবে গ্রন্থির পুনঃ প্রকাশনা করতে সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য গ্রন্থটির সম্পাদক এম ধর্মবোধি ভিক্ষু শিক্ষাবিদ শাসনবংশ মহাস্থবির মহোদয়কে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানান ।

বিস্তারিত দেখুন

সম্পর্কিত খবর গুলো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটা ও দেখতে পারেন

Close
Close